• শনিবার, ২৮ মে ২০২২, ০১:০০ পূর্বাহ্ন
  • [gtranslate]
শিরোনাম
উপজেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ব্রজেন্দ্রগঞ্জ রাম চন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয় দিরাইয়ে নুরুল হুদা মুকুট ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্বোধন মাহমুদুল হাসান চৌধুরী সিরাজের ঈদ শুভেচ্ছা সাবেক চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান জিতু’র ঈদ শুভেচ্ছা আলহেরা জামেয়া ইসলামিয়া ফাজিল(ডিগ্রি) মাদ্রাসায়, ১মাস কুরআন প্রশিক্ষণ শেষে পুরস্কার বিতরণ দিরাইয়ে বিএনপির ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত যুক্তরাজ্য বিএনপির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আজমল হোসেন চৌধুরী জাবেদের উদ্যোগে দোয়া ও ইফতার মাহফিল সিলেট মহানগর ৯ নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের ইফতার বিতরণ মুক্তি পেলো আশিক সরকারের নতুন গান ‘ভুইল না আমায়’ ব্রজেন্দ্রগঞ্জ স্কুলের সভাপতি হলেন আজিজুল

দিরাইয়ে’র কর্ণগাঁও-গচিয়া সড়কের সংস্কার কাজ শেষ হওয়ার আগেই সড়কে ধস

নিজস্ব প্রতিবেদক:-
প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১

ভাটি অঞ্চল সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার কর্ণগাঁও-গচিয়া সড়কের সংস্কার কাজ শেষ হওয়ার আগেই বিভিন্ন অংশ ধসে গেছে। নিম্নমানের নির্মাণ সামগ্রী ও দায়সারাভাবে কাজ করায় নির্মাণ কাজ পুরোপুরি শেষ হওয়ার আগেই এই অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে বলে অভিযোগ করে চরম ক্ষোভ প্রকাশ করছেন এলাকাবাসী। তারা বলছেন, ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে ম্যানেজ করে দায়সারা কাজ করার ফলেই সড়কের দুইপাশে ভেঙে যাচ্ছে।

 

জানা গেছে, প্রায় কয়েক হাজার লোকজন প্রতিনিয়ত এ সড়ক দিয়ে জেলা ও উপজেলা সহরের সাথে যোগাযোগ করেন । দীর্ঘদিন ধরে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছিল। সড়কটির সংস্কার ও উন্নয়ন কাজে ৬২ লক্ষ ২২ হাজার ১৯৬ টাকা বরাদ্দ দেয় সরকার। এতে স্থানীয়রা আনন্দ-উচ্ছাস প্রকাশ করেন। কাজটি প্রায় শ্যামলী রেনু মিয়া নামে একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। তবে কাজের মান উন্নত না হওয়ায় ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী।

 

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, সড়কের কাজ বন্ধ রয়েছে। সড়কের শেষ হওয়া কার্পেটিং এর একাধি স্থানের পিচ ঢালাই উঠে যাচ্ছে। এলাকাবাসী অনেকেই আক্ষেপ করে বলেন, পায়ের হাঁটার সাথেই পিচের ঢালাই উঠে যায়। আবার কোথাও কোথাও সড়কের পাশের মাটি সরে গিয়ে সড়ক ভেঙে যাচ্ছে।

 

স্থানীয়রা জানান, ঠিকাদার এই সড়কের কাজে অনিয়ম করেছে। সড়কের মধ্যে দুই নম্বর ইটের সুরকি দিয়েছে। পাশাপাশি গুঁড়ি পাথর দিয়ে সড়কে যে ঢালাই দিয়েছে তা উঠে যাচ্ছে এলাকাবাসী আরও বলেন, কাজের মান ভালো না হওয়ায় আমরা মানববন্ধন করেছি কিন্তু আমাদের কোন অভিযোগ আমলে না নিয়ে তাদের ইচ্ছে মত কাজ করেছে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান। তাই পুনরায় সড়কের কাজ বাস্তবায়ন করা হোক।

 

এ সড়কে চলাচলকারী মোটরসাইকেল চালক খিজির হোসেন বলেন,সড়ক দেড় থেকে দুই মাস হলো ঠিক করা হয়েছে এখনই ভাঙনের এই অবস্থা। ৬২ লক্ষ টাকার রাস্তা ৫০ দিনে শেষ। এই সড়ক যদি দ্রুত মেরামত না হয় তাহলে আবার আগের মতো একযুগ অপেক্ষা করতে হবে।

স্থানীয় বাসিন্দা ছদরুল ইসলাম বলেন, দেড় থেকে দুই মাস আগে রাস্তা কাজ করা হয়েছে। এখনও পুরোপুরি কাজ শেষ হয়নি আর বর্তমানে ভাঙ্গন শুরু হয়েছে। দুর্নীতি শুনেছি কিন্তু বাস্তবে দুর্নীতি দেখতেছি প্রতিবদা করেছি কিন্তু কোন সারা পাচ্ছি না।

 

এ বিষয়ে ঠিকাদার রেনু মিয়ার সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, সড়কের সামান্য অংশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আমরা তা সংস্কার করে দিব।

 

এব্যাপারে দিরাই উপজেলা নির্বাহী প্রকৌশলী ইফতেখার হোসেন জানান,বর্ষা মৌসুমের কারণে কিছুদিনের জন্য কাজ বন্ধ রয়েছে। সড়কের কাজ এখনো বাকি রয়েছে। সড়কে ভেঙে যাওয়া এবং কিছু জায়গায় সাইড ধসে যাওয়ার বিষয়টি আমরা গুরুত্ব সহকারে পর্যবেক্ষণ করছি। ঠিকাদারকে ভাঙন অংশ সংস্কার করতে বলা হয়েছে।

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category