• শনিবার, ২৮ মে ২০২২, ০১:৩২ পূর্বাহ্ন
  • [gtranslate]
শিরোনাম
উপজেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ব্রজেন্দ্রগঞ্জ রাম চন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয় দিরাইয়ে নুরুল হুদা মুকুট ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্বোধন মাহমুদুল হাসান চৌধুরী সিরাজের ঈদ শুভেচ্ছা সাবেক চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান জিতু’র ঈদ শুভেচ্ছা আলহেরা জামেয়া ইসলামিয়া ফাজিল(ডিগ্রি) মাদ্রাসায়, ১মাস কুরআন প্রশিক্ষণ শেষে পুরস্কার বিতরণ দিরাইয়ে বিএনপির ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত যুক্তরাজ্য বিএনপির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আজমল হোসেন চৌধুরী জাবেদের উদ্যোগে দোয়া ও ইফতার মাহফিল সিলেট মহানগর ৯ নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের ইফতার বিতরণ মুক্তি পেলো আশিক সরকারের নতুন গান ‘ভুইল না আমায়’ ব্রজেন্দ্রগঞ্জ স্কুলের সভাপতি হলেন আজিজুল

জামালগঞ্জে বিএনপি নেতা এমদাদুল হক আফিন্দীর বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক:-
প্রকাশিত: শনিবার, ১১ সেপ্টেম্বর, ২০২১

গঞ্জের জামালগঞ্জ উপজেলা বিএনপি নেতা এমদাদুল হক সহ আরো কয়েকজনের বিরুদ্ধে নৌযানে চাঁদাবাজির অভিযোগ উঠেছে। চাঁদাবাজির এই অভিযোগ তুলেছেন উপজেলার রক্তি নদীতে চলাচলকারী নৌযান শ্রমিকরা। তাদের অভিযোগ, স্থানীয় যুবক মোঃ শাহজাহান মিয়া, মোঃআব্দুল মিনহাজ আফিন্দী, সালেহ আহমদ আফিন্দী, আব্দুর রহিম, জয়নুল হক চাঁদাবাজিতে লিপ্ত।

অভিযোগ রয়েছে, চাঁদা আদায়ের কোনও প্রকার বৈধতা না থাকারও পরও পেশিশক্তির জোরে খালি নৌযান থেকে দেড় থেকে দুই হাজার টাকা করে জোরপূর্বক আদায় করছেন তারা। বিগত এক সপ্তাহ ধরে এমন চাঁদাবাজি চলমান বলে জানান ভুক্তভোগীরা।

গত বৃহস্পতিবার (৯ সেপ্টেম্বর) ভোররাতে চাঁদাবাজির শিকার নৌযান শ্রমিকরা জানান, সুরমা এবং রক্তি নদী দিয়ে চলাচলকারী বালু ও পাথরের খালি নৌযান, চলন্তাবস্থায় নৌযান, বোঝাই নৌযান থেকে ছোট ট্রলারে করে এমদাদুল হক আফিন্দীর নেতৃত্বে নৌকাপ্রতি দেড় থেকে দুই হাজার টাকা করে চাঁদা আদায় করছেন স্থানীয় যুবক মোঃশাহজাহান মিয়া, মোঃআব্দুল মিনহাজ আফিন্দী, সালেহ আহমদ আফিন্দী, আব্দুর রহিম, জয়নুল হক প্রমুখ। চাঁদা না দিলে নৌযান শ্রমিকদের মারধর করার অভিযোগও রয়েছে তাদের বিরুদ্ধে।

রোমেনা ১নামক বাল্কহেড নৌকার মাঝি আবুল কালাম বলেন, রক্তিনদীর মোহনায় সেতুর কাছে ছোট একটি ট্রলারে করে এসে ৫-৬ জন যুবক দেশীয় অস্ত্র হাতে নৌকার গতিরোধ করে। এমদাদুল হকের কথা বলে চাঁদা দাবি করেন তারা। রসিদ ছাড়া চাঁদা দিতে রাজী না হওয়ায় চাঁদাবাজরা আমাকে মারধর করতে থাকে এবং প্রাণনাশের হুমকি দেয় ।জীবন বাঁচাতে বাধ্য হয়ে তাদেরকে দুই হাজার টাকা চাঁদা দেই। তারা বলে, আমরা হাজী এমদাদুল হকের লোক। এমদাদুল হক আমার সাথে ফোনে কথাও বলেন।

রক্তি নদী থেকে বের হয়ে ভৈরবের উদ্দেশ্যে যাত্রাপথে জামালগন্জের সাচনাবাজার ইউনিয়নের দূর্লভপুর গ্রামের সামনে সুরমা নদীতে শারীরীক হামলা ও চাঁদাবাজীর শিকার হন সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার শ্রীপুর গ্রামের সুমনা নৌপরিবহনে থাকা ব্যবসায়ী জিয়াউল হক। তিনি বলেন, রসিদ দিয়ে টাকা নেয়ার কথা বললে চাঁদাবাজরা আমার নৌপরিবহনে থাকা তিনজনকে বেদম প্রহার করে। তারা বলে এই কিলঘুষিই হচ্ছে রসিদ । এমদাদুল হক আফিন্দীর টাকা নিতে কোন রশিদ লাগে না। আমাদের কাছ থেকে দেড় হাজার টাকা চাঁদা নিয়ে যায় সশস্ত্র যুবকরা।

রক্তি নদীর ইজারাদার ওয়াহেদ আলী বলেন, এমদাদুল হক তার দলবল নিয়ে নদীতে এসে নৌযান থেকে দেড় দুই হাজার টাকা করে চাঁদা আদায় করেছেন। আমি বিষয়টি প্রশাসনকে মৌখিকভাবে জানিয়েছি, লিখিতভাবেও জানাব।

অভিযোগের ব্যাপারে জানতে চাইলে জামালগন্জ থানার দূর্লভপুর গ্রামের মৃত আব্দুল মন্নান আফিন্দীর পুত্র এমদাদুল হক আফিন্দী বলেন, আমি ব্যাক্তিগতভাবে নয়, বিআইডব্লিউটিএর নামে কালেকশন করে যাচ্ছি ।নয়াহালট গ্রামের হাসান মাহমুদ ওরফে হাছিন মিয়া হচ্ছেন বিআইডব্লিউটিএর প্রকৃত ইজারাদার আমি তার ব্যবসায়ী অংশীদার মাত্র ।প্রতিফুট ২৫পয়সা হারে সাচনাবাজার থেকে নোয়াগাও বাজার পর্যন্ত বালুপাথর লোড আনলোডের বার্দিং চার্জ যথানিয়মে আদায় করেন বলে স্বীকার করেন বিএনপি নেতা এমদাদুল হক আফিন্দী। তিনি আরও বলেন, কাগজেপত্রে হাসান মাহমুদ ইজারাদার হলেও আমি তার সাথে ব্যবসায়ীক অংশীদার হিসাবে বার্দিং চার্জ আদায়ে তাকে সহযোগিতা করে যাচ্ছি। আমি যদি তার অংশীদার না হতাম তাহলে নদীতে কালেকশনে যেতাম না। জামালগন্জ থানার ফাজিলপুর গ্রামের আব্দুর রহিম ও জয়নুল হক এবং দূর্লভপুর গ্রামের আব্দুল আফিন্দীর মাধ্যমে নদীতে তিনি বিভিন্ন নৌপরিবহন থেকে টাকা উত্তোলন করে যাচ্ছেন বলে স্বীকার করেন।

২০২১সালের জুন মাস হতে ২০২২ সালে জুন মাস পর্যন্ত জামালগন্জ থেকে ভীমখালী নোয়াগাও বাজার পর্যন্ত নির্দিষ্ট এলাকা বা সুরমা নদীর ঘাটে রশিদ দ্বারা বাদিং চার্জ আদায় করেন জানিয়ে বিআইডব্লিউটিএর ইজারাদার হাসান মাহমুদ বলেন, লেখাপড়ায় কাউকে ভাগীদার বা সাবলীজ দেইনি । আমি নিজেই আমার লোকের দ্বারা কালেকশন করে যাচ্ছি । বিআইডব্লিউটিএর নতুনভাবে টেন্ডার না হওয়াতে নবায়নের মাধমে সাবেক ইজারাদার হিসাবে সর্বশেষ ১৪ লক্ষ ৪০হাজার টাকা ইজারামূল্য পরিশোধ করেছি। পূর্বে ২টি নৌকায় ৮জন লোক ছিল ।বর্তমানে ১নৌকায় চালকসহ ৪জন লোকবল দ্বারা বৈধভাবে আমরা ইজারা কার্যক্রম চালাচ্ছি । ড্রাইভার এতরাজ ফতেহপুর ঝুনু মিয়া ও মোজাহিদ নয়াহালট এবং শিরিনমিয়া সাচনাবাজার শাহপুর এই ৪জন হচ্ছে আমার প্রতিনিধি।
হাসান মাহমুদ আরো বলেন, এমদাদুল হক আফিন্দী আমার ভাগীদার হওয়ার প্রশ্নই আসে না। আমি তাকে আমরা ইজারা অংশীদার নিয়োগ করিনি। এমদাদুল হক আফিন্দী ও তার লোকজন বিনা রশিদে বেআইনীভাবে চাঁদা উত্তোলন করে যাচ্ছে। এর দায়িত্ব তার উপরেই বর্তাবে ।
নৌপুলিশ রাকিবুল হাসান বলেন, আমরা নৌপথে চাঁদাবাজী বন্ধে জিরো টলারেন্স নিয়ে কাজ করছি ।আমরা এখনও এব্যাপারে কোন অভিযোগ পাইনি অভিযোগ পেলে চাঁদাবাজী বন্ধে অবশ্যই যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহন করব।

 

জামালগন্জ থানার অফিসার ইনচার্জ সাইফুল আলম বলেন , আমরা নদীতে পুলিশ মোতায়েন করে চাঁদাবাজদের বিরদ্ধে অভিযান অব্যাহত রেখেছি। নদীতে কেউ চাঁদাবাজি করলে উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে আমাদের বলতে হবে। তিনি কাউকে ধরে দিতে বললে আমরা পুলিশ প্রশাসন সহযোগিতা করতে প্রস্তত আছি।

বিএনপি নেতা এমদাদুল হক পুলিশের সেল্টারে চাঁদাবাজিসহ বালিপাথর বহনকারী এবং খালি নৌপরিবহন এর চালক মালিক ও ব্যবসায়ীদের মারপিট করে যাচ্ছে এমন অভিযোগের প্রেক্ষিতে ওসি সাইফুল আলম বলেন, পুলিশ চাঁদাবাজদের সেল্টার দেয়, এমন প্রশ্নই আসেনা। এমদাদুল হকের বিরদ্ধে আমরা কোন অভিযোগ পাইনি। তারপরও নদীতে চাঁদাবাজি করতে দেখলে তাদেরকে হাতেনাতে আটক করতে পুলিশ পিছপা হবে না।
জামালগন্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিশ্বজিত দেব বলেন, ইজারাদারদের আমরা শর্ত সাপেক্ষে ইজারা দিয়ে থাকি। শর্ত এবং চুক্তি মেনেই তারা টুলটেক্স আদায় করবে কিন্তু ইজারাবিহীন কোন ব্যক্তি বা গোষ্টি কোন ঘাট, মহাল বা নৌপরিবহনের কাছ থেকে কোন সুবিধা নিতে পারবে না। নদীতে কেউ চাঁদাবাজীর শিকার হলে থানা পুলিশে বা আদালতে অথবা আমার কাছে অভিযোগ দিলে অবশ্যই প্রতিকার পাবেন। তিনি চাঁদাবাজ যারাই হউক না কেন তাদের নামঠিকানা ও মোবাইল নাম্বার সহ সটিক ভাবে সনাক্ত করে ভোক্তভোগী ব্যক্তি ও ইজারাদারকে লিখিত অভিযোগ দায়েরের পরামর্শ দিয়ে বলেন ,আমরা ইতিমধ্যে যাদের বিরদ্ধে অভিযোগ পেয়েছি এবং যেসব চাঁদাবাজদের বিরদ্ধে অভিযোগ দায়েরের সাহস পাচ্ছে না সেসকল চাঁদাবাজ চক্রের বিরদ্ধে ব্যবস্হা গ্রহনের চেষ্টা করবো এ নিশ্চয়তা দিতে পারি ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category